মোবাইল ফোন অপারেটর দশ সেকেন্ডের পালস বাস্তবায়ন


সব মোবাইল ফোন অপারেটর তাদের প্রতিটি ফোন কলে সঠিকভাবে দশ সেকেন্ডের পালস বাস্তবায়ন করেছে কিনা তা পর্যবেক্ষন করতে টেকনিক্যাল অডিট করতে যাচ্ছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা – বিটিআরসি। অক্টোবরের শুরুতেই এই অডিট করা হবে বলে জানিয়েছেন বিটিআরসি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ৩০ দিনের মধ্যে অডিট শেষ করা হবে। ইতিমধ্যে এ বিষয়ে অডিট দল গঠনের কাজ চলছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, দশ সেকেন্ডের পালস দেওয়ার ফলে অপারেটদের আয়ে কি ধরণের পরিবর্তন হচ্ছে বা গ্রাহক কি ধরণের সুবিধা-অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছে তা পর্যাবেক্ষন করা হবে। এক্ষেত্রে সরকারের ভ্যাট ও অন্যান্য আয়ে কি প্রভাব পড়বে তাও এই অডিট কার্যক্রমের মাধ্যমে জানা সম্ভব হবে।

জানা গেছে, বিটিআরসি’র কমিশন বৈঠকে এ ধরণের সিদ্ধান্ত হয়েছে। সেক্ষেত্রে বিটিআরসি’র প্রতিনিধিদের সঙ্গে সঙ্গে অপারেটরের প্রতিনিধিদের নিয়ে অডিট দল গঠন করা হবে। অডিট দল সবগুলো অপারেটরের সুইচ রুম এবং ব

িলিং সিস্টেম পর্যাবেক্ষন করবে বলেও জানিয়েছে সূত্র।

অডিটের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে অপারেটররা। এ বিষয়ে রবি’র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহবুবুর রহমান বলেন, নিয়ন্ত্রক সংস্থার এসে দেখা যাওয়া উচিৎ পরিস্থিতি কোন দিকে যাচ্ছে। তাছাড়া সরকারের আয় প্রাপ্তির বিষয়ে কি প্রভাব পড়বে সেটিও দেখতে হবে। একইভাবে গ্রামীণফোনের কর্পোরেট বিভাগের প্রধান মাহমুদ হোসাইনও জানিয়েছেন, বিটিআরসি দেখে যেতে পারে। এতে সমস্যার কিছু নেই।

এর আগে সিটিসেলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মেহবুব চৌধুরী জানান, দশ সেকেন্ডের পালস বাস্তবায়নে তাদের প্রতিদিনের আয়ের ওপর বড় ধরণের প্রভাব পড়েছে। এর ফলে প্রথম সপ্তাহে তাদের আয় ১৭ শতাংশ কমেছে বলেও জানান তিনি।

রবি জানিয়েছে, তারা এখনো দশ সেকেন্ডের পালস বাস্তবায়নের হিসেব করেননি। কিন্তু অবশ্যই আয়ের ওপর এর প্রভাব ফেলছে। তাতে করে সরকারের আয়ও কমে যাবে বলে জানান তারা। যতো টাকার কথা হয় তার ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট পায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড। তাছাড়া অপারেটরদের মোট আয়ের সাড়ে পাঁচ শতাংশ পায় বিটিআরসি। প্রতি বছর এই দুই খাত থেকে সরকারের কোষাগারে হাজার হাজার কোটি টাকা জমা পড়ে।

এদিকে অপর একটি অপারেটর জানিয়েছে, দশ সেকেন্ডের পালসের ফলে কম কথা যারা বলেন তাদের জন্যে ভালো হলেও যারা একটু বেশী সময় কথা বলেন তাদের বিল বেড়েছে। আগে অনেক অপারেটরেই প্রথম মিনিটে এক রকম বিল ছিল। তারপর দ্বিতীয় মিনিট থেকে বিলের ধরণ বদলে যেত। এখন প্রতি দশ সেকেন্ডে একই রকম বিল। তাছাড়া যারা আগে এক সেকেন্ড বা পাঁচ সেকেন্ডের পালস ব্যবহার করতেন তার অনেকগুলোই উঠে গেছে। ফলে এই গ্রাহকদের বিলও বেড়েছে।

Advertisements

Posted on October 5, 2012, in news and tagged , , . Bookmark the permalink. Comments Off on মোবাইল ফোন অপারেটর দশ সেকেন্ডের পালস বাস্তবায়ন.

Comments are closed.

%d bloggers like this: